সারা দেশে বজ্রপাতে ১৬ জনের মৃত্যু

25

সারা দেশে বজ্রপাতে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বজ্রপাতে নরসিংদীতে ৫, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩, পাবনায় ২, সুনামগঞ্জে ১, কিশোরগঞ্জে ১, নওগাঁয় ১, নেত্রকোনায় ১, চাঁদপুরে ১, পটুয়াখালীতে ১ জনসহ ৯ জেলায় মোট ১৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

Advertisement
spot_img

নরসিংদী: নরসিংদীতে পৃথক স্থানে বজ্রপাতে এক নারীসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার জেলা সদর, রায়পুরা, মনোহরদী ও শিবপুর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে। মৃত্যুদের স্বজন ও স্থানীয়রা জানান, দুপুর ২টার দিকে রায়পুরা উপজেলার নিলক্ষা ইউনিয়নের গোপীনাথপুরে বাড়ির সামনের মাঠে ফুটবল খেলছিল কয়েকজন কিশোর। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে জাবেদ, শিমুল (১১), রিয়াজুল (১২) ও হাসান (১১) আহত হয়। তাদের মধ্যে জাবেদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। এর আগে সকালে খড়ের গাদা তৈরি করার জন্য বাড়ির পাশের একটি জমি থেকে খড় আনতে যান শ্রীনগর ইউনিয়নের ফকিরের চর গ্রামের সামসুন নাহার। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এদিকে, মনোহরদী উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের পাতরদিয়া গ্রামে রায়হান মিয়া নামে এক প্রবাস ফেরত যুবক বজ্রপাতে মারা গেছেন। মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে তিনি বাড়ির পাশের ঈদগাহ মাঠে দাঁড়িয়েছিলেন। এ সময় বৃষ্টি শুরু হলে বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে শিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকালে শিবপুরের দক্ষিণ সাদারচর গ্রামের খোরশেদ মিয়ার ছেলে খোকন মিয়া মাঠে কাজ করছিলেন। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত শুরু তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে সেখান থেকে পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পলাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক নিয়াজ মোর্শেদ বলেন, কৃষক খোকন মিয়াকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল। এছাড়া নরসিংদী শহরের পশ্চিমকান্দাপাড়া মহল্লার পুকুরে গোসল করতে গেলে বজ্রপাতে মারা যায় শুপ্তকর। সে স্থানীয় সাঠিরপাড়া কালিকুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিল। শুপ্তকরের মৃত্যুর বিষয়টি স্বজনদের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া গেলেও তারা গণমাধ্যমে নাম প্রকাশ করতে চাননি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: জেলার নাসিরনগর ও বাঞ্ছারামপুরে পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় ২ কৃষকসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে। নাসিরনগর উপজেলার গোয়ালনগর ইউনিয়নে দুপুর ২টার দিকে বজ্রপাতে মোজাম্মেল হক (৩২) নামে এক ইটভাটা শ্রমিকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। নিহতের বাড়ি গোয়ালনগর ইউনিয়নের সোনাতলা গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মতি মিয়ার ছেলে। অপরদিকে একই উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নে মেদির হাওরে কাজ করতে গিয়ে বজ্রপাতের শব্দে আতঙ্কিত হয়ে মোজাম্মেল হক নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। নিহত মোজাম্মেল হক আশুরাইল গ্রামের মতি মিয়ার ছেলে।

পাবনা: জেলার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় বজ্রপাতে ২ জন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ১৩ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার বেতুয়ান গ্রামে ধান কাটার সময় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শ্রমিকরা জেলার চাটমোহর উপজেলার ছাইকোলা গ্রামের বাসিন্দা শাকিল হোসেন (১৯) ও রমিজ উদ্দিন (৩০)। এ সময় বজ্রপাতে আরও অন্তত ১৩ জন আহত হয়। আহতদের ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ: নদীপথে ট্রলারে করে ধান পরিবহনের সময় বজ্রপাতে সুনামগঞ্জে ওমর মিয়া নামে এক স্কুলছাত্র মৃত্যু হয়েছে। সকালে ধর্মপাশা উপজেলার ৪ নম্বর জয়শ্রী ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের সীমের খাল (বরাইয়া) নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওমর মিয়া (১৬) উপজেলার বাদে হরিপুর গ্রামের মৃত আলিম উদ্দিনের ছেলে। ধর্মপাশার জয়শ্রী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র। এ সময় তার সঙ্গে থাকা একই গ্রামের শাহীন, কালাচান ও আবুল কাশেম আহত হয়েছেন। পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে ধর্মপাশা থানার সীমের খাল (বরাইয়া) নদীতে ট্রলারে করে মধ্যনগর ধান নিয়ে যাওয়ার সময় বজ্রপাতের আঘাতে ওমর মিয়া নৌকা থেকে নদীর পানিতে পড়ে যায়। প্রায় ২ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পর মাছ ধরার জাল দিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বজ্রপাতে কাজী জিল্লুর রহমান নামে ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার আগানগর ইউনিয়নের লুন্দিয়া খলাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জিল্লুর রহমান ভৈরব পৌর শহরের কমলপুর কাজীবাড়ির মৃত কাজী গোলাপ মিয়ার ছেলে। স্থানীয়রা জানান, জিল্লুর রহমান মাক্কু মোল্লা নামের একটি ফুড কারখানায় কাজ করতেন। কারখানার কাজে মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি ওই এলাকায় যান। হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হলে তিনি হেঁটে ফেরার সময় বজ্রপাতের শিকার হন। ঘটনার পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নওগাঁ: জেলার রানীনগর উপজেলায় বজ্রপাতে জামিল হোসেন (২০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ভবানীপুর গ্রামে ওই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটেছে। জামিল হোসেন ওই গ্রামের মৃত আজাদ আলির ছেলে। রানীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নেত্রকোনা: জেলার মদন উপজেলার বাগজান হাওরে বজ্রপাতে জয়নাল (২৫) নামে এক কৃষক মারা গেছেন। মঙ্গলবার সকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জয়নাল বাগজান গ্রামের আবু চানের ছেলে। মদন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. শাহ আলম মিয়া জানান, বজ্রপাতে নিহত জয়নালের দাফনের জন্য ২০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে।

চাঁদপুর: চাঁদপুর সদর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের পশ্চিম ছোট সুন্দর গ্রামে বজ্রপাতে মো. হাসান মিজি (৪৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে ওই গ্রামের গফুর মিয়াজী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হাসান ওই বাড়ির মৃত কামাল উদ্দিন মিজির ছেলে। রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আল মামুন পাটওয়ারী বলেন, প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি আম কুড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে হাসানের মৃত্যু হয়েছে।

পটুয়াখালী: জেলার দশমিনা উপজেলায় মাঠে গরু চরাতে গিয়ে বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে বজ্রপাতের এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত উপজেলার সদর ইউনিয়ন ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাঠাখালি গ্রামের চাঁনমিয়া হাওলাদার বাড়ির মৃত্যু আলী হাওলাদার ছেলে মো. আ. রউফ হাওলাদার (৬০)। ইউপি সদস্য মো. ওলিউল ইসলাম হাওলাদার বজ্রপাতে একজনের মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Advertisement
spot_img