সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষকদের মধ্যে বিদ্যমান বৈষম্য নিরসনের জন্য সরকার কাজ করছে- শিক্ষামন্ত্রী

137

বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি -বাকশিস চট্টগ্রাম জেলা শাখা ও চট্টগ্রাম মহানগর শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী এম.পি বলেছেন সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষকদের মধ্যে বিদ্যমান বৈষম্য নিরসনের জন্য সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। এমপিভুক্ত শিক্ষকদের বাড়িভাড়া, চিকিৎসা ও উৎসব ভাতা সহ অন্যান্য আর্থিক সুবিধাদি বাড়ানোর ব্যাপারে আগামী বাজেটে বরাদ্ধ রাখার প্রক্রিয়া চলছে। তিনি বেসরকারি কলেজে ২০১০ এর নীতিমালা অনুযায়ী সহযোগী অধ্যাপক পদ পুনর্বহাল করা, জ্যেষ্ঠ প্রভাষক পদ পরিবর্তন করে সহকারী অধ্যাপক পুনর্বহাল করা এবং অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়ার শর্ত শিথিল করার জন্য শীঘ্রই বাকশিস নেতৃবৃন্দের প্রস্তাবের ভিত্তিতে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার আশ্বাস প্রদান করেছেন। তিনি বলেন এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বদলীর বিষয় নিয়েও সরকার কাজ করছে তবে বদলী নীতিমালা গ্রহণ ও বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে বেশ কিছু জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় সময়ক্ষেপণ হচ্ছে।

Advertisement
spot_img

তিনি বলেন শিক্ষক ও শিক্ষাবান্ধব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার ভিশন নিয়ে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নত দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে শিক্ষা ক্ষেত্রে স্মার্ট শিক্ষিত জনগোষ্ঠী এবং মানবসম্পদ তৈরি করার লক্ষ্যে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর দক্ষতা ভিত্তিক যুগোপযোগী শিক্ষা অর্জনের জন্য নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হয়েছে। এই কারিকুলাম বাস্তবায়নে তিনি কলেজ শিক্ষকদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন এবং শিক্ষকদেরও বাস্তবজ্ঞান, প্রশিক্ষণ ও গবেষণার মাধ্যমে নতুন শিক্ষা কারিকুলামে এগিয়ে নেয়ার আহবান জানান।

 

আজ সকালে চট্টগ্রামের স্মরণিকা কনভেনশন হলে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি -বাকশিস এর সম্মেলনে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করার সময় একথা বলেন। বাকশিস এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা এম.পি সম্মেলন উদ্বোধন করে বলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ তথা উন্নত বাংলাদেশ করতে হলে রাস্ট্রের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাত শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিয়ে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। দেশের ৯০ ভাগ জাতীয় শিক্ষার দায়িত্বপালনকারী বেসরকারি শিক্ষকদের জীবনমান উন্নয়নে সম-যোগ্যতা সম- দায়িত্ব ও সম- অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ সরকারি শিক্ষকদের অনুরূপ বাড়িভাড়া, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ও চিকিৎসা ভাতা প্রদান এবং পূর্ণাঙ্গ পেনশন দিতে হবে। শুধু তাই নয় সরকারি কলেজ শিক্ষকদের অনুরূপ বেসরকারি এমপিওভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের সহযোগী অধ্যাপক ও অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দিতে হবে। বাকশিস চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি অধ্যক্ষ দবির উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন বাকশিস এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ফয়েজ হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাকশিস, চট্টগ্রাম জেলা সাধারণ সম্পাদক ও সম্মেলন প্রস্তুতি পর্ষদের আহবায়ক অধ্যাপক মো. আবু তাহের চৌধুরী, সম্মেলনে প্রস্তাবনা তুলে ধরেন কেন্দ্রীয় ও জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সমীর কান্তি দাশ, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম রেজা সৌরভ, সহ-দফতর সম্পাদক অধ্যাপক মুর্শিদ শাকুরী, ঢাকা মহানগর শাখার আহবায়ক অধ্যক্ষ শেখ জুলহাস উদ্দিন এবং চট্টগ্রাম মহানগর আহবায়ক অধ্যক্ষ আ. ন. ম সরওয়ার আলম প্রমূখ। সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশন সঞ্চালনা করেন মহানগর সদস্য সচিব অধ্যাপক কাজী মাহবুবুর রহমান। সম্মেলনে অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষসহ প্রায় ১৫০০ শিক্ষক অংশগ্রহণ করেন।

বিকেলে ওমরগণি এম ই এস কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে কাউন্সিলে নির্বাচনী অধিবেশনে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি -বাকশিস চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যক্ষ সমীর কান্তি দাশ, সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ও কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যাপক সুনীল কুমার শীল। বাকশিস, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যক্ষ আ. ন. ম সরওয়ার আলম ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যাপক আবু বকর সিদ্দিকী ও কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যাপক মোহাম্মদ আইয়ুব।

Advertisement
spot_img