জলাবদ্ধতার দায় নিয়ে পদত্যাগ করুন-ডা.শাহাদাত

55

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, চট্টগ্রাম নগরের নানা এলাকার রাস্তায় পানি নিয়ে ব্যঙ্গ আর হাসি তামাশা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এদিকে আওয়ামীলীগ অন্ধের মত চোখ বন্ধ করে সব সহ্য করে যাচ্ছে। তার কারণ জনগণের বোধগম্য নয়। আইন মোতাবেক জলাবদ্ধতা নিরসনের দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের। এ ব্যাপারে সিটি কর্পোরেশন জনগণের দু:খ লাঘবে জলাবদ্ধতা নিরসনে কোন কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না? সেই কারণে মানুষের ভোগান্তি এখন চরম আকার ধারণ করছে। যেদিকে চোখ যায় পানি আর পানি। বিভিন্ন এলাকায় হাঁটু বা কোমর সমান পানিতে তলিয়ে গেছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে কোন পদক্ষেপ না নিয়ে বর্তমান মেয়র তার ভবন নির্মাণেই বেশী সময় ব্যয় করেছেন। নগরবাসী যে সেবা দেয়ার কথা তিনি তা দেননি। দুদিনের টানা বর্ষণে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ড্রেনের পানি সড়কে উঠে আসে। নোংরা পানি নিচু এলাকার বাসাবাড়িতেও ঢুকে পড়ে। এতে পানিবন্দি মানুষের দুর্ভোগ চরমে ওঠে। এই জলাবদ্ধতার দায় নিয়ে সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বশীলরা পদত্যাগ করুন।

Advertisement
spot_img

আজ তিনি মঙ্গলবার (৮ আগষ্ট) বিকেলে বাকলিয়া ডিসি রোড গণি কলোনী এলাকায় পানিবন্দি মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী ও খাবার বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের জন্য ১১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। টাকা বরাদ্দ দেওয়ার প্রায় ছয় বছর অতিবাহিত হওয়ার পরও নগরীর জলাবদ্ধতা অদ্যাবধি নিরসন হয়নি। যার দরুণ অল্প বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। গত কয়েক দিন যাবত অতিরিক্ত বৃষ্টি হওয়ায় পুরো নগরী পানিতে ডুবে যায়। লক্ষ লক্ষ মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। এই জলাবদ্ধতার কারণে, চট্টগ্রাম শহরের বৃহত্তর বাণিজ্যিক এলাকা আজ কয়েক দিন ধরে পানিতে ডুবে আছে। অনেকের বাসায় চুলা জ্বালাতে পাচ্ছে না। সন্তানদেরকে স্কুল কলেজে পাঠানো যাচ্ছে না। জলাবদ্ধতা নিয়ন্ত্রণের ব্যর্থতার কারণে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়ে সিটি মেয়রের পদত্যাগ করা উচিৎ। আওয়ামী লীগ জনগণের সরকার নয়।
তারা এক দলীয় সরকার। পুলিশ বাহিনীর উপর ভর করে তারা ক্ষমতা টিকে আছে। দেশের মানুষ আওয়ামীলীগকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না। জনগণ শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন চায় না, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়।

চকবাজার থানা যুবদলের আহবায়ক মোঃ সেলিমের সভাপতিত্বে যুবদল নেতা মোহাম্মদ সাদ্দামুল হক সাদ্দামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাবেক সহ দপ্তর সম্পাদক খোরশেদ আলম, ৩৪নং ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক কাউন্সিলার ইসমাইল বালি,১৭ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইমরান উদ্দিন, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক বাদশা, আরো উপস্থিত ছিলেন নগর যুবদল নেতা নাসির উদ্দিন চৌধুরী নাসিম,বাকলিয়া থানা যুবদলের আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন লেদু,কামাল উদ্দিন, জিয়াউল হক মিন্টু, শেখ কামাল আলম, মোঃ সোহেল, সাব্বির ইসলাম ফারুক, মোঃ রায়হান, মোঃ জাহেদ, মনছুর সওদাগর, রহিম মিনু, মোঃ সাঈদ, সুমন, আউয়াল, আরিফ, শাহাবুদ্দিন, রিয়াজ, মোঃ ফারুকসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 

Advertisement
spot_img